ইন্দুরকানীতে হত্যা মামলার আসামীর মাটি চাপা লাশ উদ্ধার - মঠবািড়য়া সমাচার

শিরোনাম

Post Top Ad

Sunday, 27 October 2019

ইন্দুরকানীতে হত্যা মামলার আসামীর মাটি চাপা লাশ উদ্ধার

অনলাইন ডেস্কঃ পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে শ্বশুর বাড়ি থেকে নিখোঁজের দুই দিন পরে হত্যা মামলার আসামীর ধান ক্ষেতের মধ্যে মাটি চাপা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রবিবার দুপুরে উপজেলার পাড়েরহাট ইউনিয়নের দরিচর ইকর বুনিয়া গ্রামের স্বপন সিকদারের বাড়ির পেছনের ধান ক্ষেতের মধ্যে তিন ফুট গভীর গর্তে মাটি চাপা দেয়া অবস্থায় নিখোঁজ সাগর মুন্সির (২১) লাশ পাওয়া যায়। সাগর মোড়েলগঞ্জ উপজেলার তেতুলবাড়িয়া ইউনিয়নের সুতালরি গ্রামের আমজাদ মুন্সির ছেলে ।
প্রায়১৫ দিন পূর্বে সাগর ইন্দুরকানী উপজেলার পাড়েরহাটের বাড়ৈখালী গ্রামের শ্বশুর নজরুল ইসলামের বাড়িতে বেড়াতে আসেন। সেখান থেকেই গত শুক্রবার বিকালে নিখোঁজ হন তিনি। তাঁর হত্যার সাথে সম্পৃক্ততায় আজাদ মোল্লা (১৪) কে আটক করেছে পুলিশ। আজাদ উপজেলার পাড়েরহাটের পূর্ব বাড়ৈখালী গ্রামের মৃত জলিল মোল্লার ছেলে। আজাদের দেয়া তথ্য মতে লাশটি উদ্ধার করা হয়। সাগরকে পিটিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে জানায় আজাদ।পরে
 গত শুক্রবার বিকালে সাগর দড়িচর ইকর বুনিয়া গ্রামে লাভলুর বাড়ি সংলগ্ন একটি দোকানে কলা বিক্রি করতে যায়।
সেখান থেকে সাগর বাড়ৈখালী বাজারের দিকে যাওয়ার সময় লাভলু সাগরের পিছু নেয়। এর পরে আর সাগর বাড়ি ফিরে আসেনি।সাগরের শ্বাশুরি ফাহিমা বেগম (৪৫) জানান, গত ৭ থেকে ৮ মাস আগে সাগর ও তার খালাত ভাই চড়িচর ইকরবুনিয়া গ্রামের স্বপন সিকদারের ছেলে লাভলু সিকদার ঢাকায় একটি কোম্পানিতে সিকিউরিটি গার্ডের চাকরি করত। সে সময় লাভলু ওই প্রতিষ্ঠান থেকে একটি গ্যাসের সিলিন্ডার চুরি করে বাড়ি চলে আসে। এঘটনায় সাগরের কাছে কর্তৃপক্ষ সিলিন্ডারের কথা জানতে চাইলে সে সিলিন্ডারটি লাভলু চুরি করেছে বলে জানায়।
এ নিয়ে কয়েক দফায় লাভলু ও সাগরের মাঝে কথা কাটাকাটি হয়। তবে
 স্থানীয় একটি সূত্র জানায়, সাগর বাড়ৈখালী বাজারের দিকে যাওয়ার সময় পথিমধ্যে লাভলু সাগরের উপর হামলা চালায়। তাকে মারপিট করে খালে ফেলে দেয়। সেখান থেকে উঠিয়ে লাভলুদের বাড়িতে নিয়ে যায়। এর পর থেকে সাগর নিখোঁজ থাকে। নিখোঁজের বিষয়ে সাগরের শ্বাশুরি ফাহিমা বেগম শনিবার ইন্দুরকানী থানায় একটি জিডি করেন। জিডির সূত্র ধরে থানা পুলিশ খোঁজ করতে থাকে সাগরকে। এরপরে সাগরের খালাত ভাই আজাদকে রবিবার সকালে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ।ইন্দুরকানী থানার ওসি হাবিবুর রহমান জানান, আজাদ মোল্লার দেয়া তথ্য মোতাবেক লাভলুদের বাড়ির পেছনের ধান ক্ষেতের মধ্যে তিন ফুট গভীর একটি গর্তের মধ্যে মাটি চাপা দেয়া অবস্থায় সাগরের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। সাগরকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে জানিয়েছে আজাদ। আজাদ, লাভলু ও সাগর আপন খালাত ভাই। পিরোজপুর জেলা পুলিশ সুপার হায়াতুল ইসলাম খান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। সাগরের লাশ পিরোজপুর মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।উল্লেখ্য সাগর ইন্দুরকানীর পাড়েরহাটের উমেদপুর গ্রামের স্কুল ছাত্র সালাউদ্দিন আলোচিত হত্যা মামলার ৯ নাম্বার আসামী। গত সেপ্টেম্বর মাসের ৭ তারিখ জামিনে মুক্তি পেয়েছিল সাগর।

No comments:

Post a comment

Post Top Ad

Responsive Ads Here