মঠবাড়িয়ায় গণধর্ষণের ঘটনায় দুই ধর্ষকের আদালতে স্বীকারোক্তি - মঠবািড়য়া সমাচার

শিরোনাম

Post Top Ad

Tuesday, 25 February 2020

মঠবাড়িয়ায় গণধর্ষণের ঘটনায় দুই ধর্ষকের আদালতে স্বীকারোক্তি



নিজস্ব প্রতিনিধিঃ পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় দশম শ্রেণীর এক স্কুলছাত্রী (১৫) কে গণধর্ষনের ঘটনায় নয়ন মোল্লা (১৯) ও আরিফুল ইসলাম (২০) নামে দুই ধর্ষক স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দী দিয়েছে আদালতে। সোমবার বিকেলে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট পিরোজপুর মো. মহিউদ্দিন এর আদালতে তারা এ জবানবন্দী দেয়। মঠবাড়িয়া থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) আঃ হক জানান, গণধর্ষণ মামলার সুষ্ঠু বিচারের স্বার্থে আসামীদের স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দী দেয়ায় বিচার কার্য অনেকটা এগিয়ে গেল। তিনি আরও জানান, ওই স্কুলছাত্রী ডাক্তারী পরীক্ষা সোমবার সিভিল সার্জন কার্যালয় সম্পন্ন করা হয়েছে।
উল্লেখ্য রোববার গভীর রাতে পৌর এলাকার কল্লাকাটা ব্রীজ সংলগ্ন ইলিয়াসের বাসা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। নয়ন উপজেলার সাপলেজা গ্রামের মজিবর মোল্লা ও আরিফুল জরিপেরচর গ্রামের মৃত বাদশা মিয়ার ছেলে।
থানা সূত্রে জানা গেছে, পৌর শহরের এক ব্যবসায়ীর মেয়ে দশম শ্রেণীর ওই স্কুল ছাত্রী রাত সাড়ে ৯টার দিকে প্রাইভেট পড়ে বাসায় ফেরার পথে ওই দুই লম্পট দেশীয় অস্ত্রের মুখে অপহরণ করে কল্লাকাটা ব্রীজ সংলগ্ন ইলিয়াসের বাসায় নিয়ে আটকে রাখে। এরপর বখাটে নয়ন মোল্লা ও আরিফুল ইসলাম গভীর রাত পর্যন্ত পালাক্রমে ধর্ষণ করে।
এদিকে ওই ছাত্রী বাসায় না ফেরায় তার পরিবারের সদস্যরা খোজাখুঁজি করে না পেয়ে পুলিশকে অবহিত করে। মঠবাড়িয়া থানার উপ-পরিদর্শশ শহিদুল ইসলাম গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ইলিয়াসের বাসা থেকে দুই বখাটেকে রাত সাতে তিন টার দিকে আটক করে এবং স্কুল ছাত্রীকে উদ্ধার করে।

No comments:

Post a comment

Post Top Ad

Responsive Ads Here