মঠবাড়িয়ায় তুষখালী ইউনিয়নে জনবহুল আবাসিক এলাকায় কাঠ দিয়ে অবৈধভাবে ইটের পাঁজা পোড়ানোর অভিযোগ - মঠবািড়য়া সমাচার

শিরোনাম

Post Top Ad

Tuesday, 25 February 2020

মঠবাড়িয়ায় তুষখালী ইউনিয়নে জনবহুল আবাসিক এলাকায় কাঠ দিয়ে অবৈধভাবে ইটের পাঁজা পোড়ানোর অভিযোগ

মঠবাড়িয়া প্রতিনিধিঃ পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় তুষখালী ইউনিয়নে জনবহুল আবাসিক এলাকায় কাঠ দিয়ে অবৈধভাবে ইটের পাঁজা পোড়ানোর অভিযোগ উঠেছে।আবাসিক এলাকায় ইট পাঁজা জ্বালানোর ফলে গাছপালা ছাড়াও মৌসুমী ফল আম, কাঁঠাল,  লিচু, সুপারীর ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে বলে জানান বাগান মালিকরা।উপজেলার ১ নং তুষখালী ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ড জানখালী গ্রামের মালেক ডিলারের ছেলে আকরাম হোসেন বিগত বছর ইট পোড়ালেও বর্তমান বছরে উক্ত ইট পাঁজা পোড়ানো ব্যবসাটি ইউনুছ নামে একজনকে লিজ দিয়ে দেন।ইউনুছ মিয়া স্হানীয় করিম মোল্লার ছেলে।ইউনুছ মিয়া প্রভাবশালী হওয়ায় ইটপাঁজা বাধাহীনভাবেই নির্মান করে চলছে।স্হানীয় উপজেলা প্রশাসনের কতিপয় অসাধু কর্মকর্তা ও প্রভাবশালীদের অর্থনৈতিক সুবিধা প্রদান করেই তৈরি করা হচ্ছে আবাসিক এলাকায় এসব ইটের পাঁজা।এ ব্যাপারে স্হানীয় দফাদার মোঃ ছিদ্দিকুর রহমান জানান,"অবৈধ ইট পাঁজার মালিকরা ফসলি জমি দখল করে প্রতি বছর নানা অজুহাতে ইট পুড়িয়ে পরিবেশের ক্ষতি করে আসছে।এটা বন্ধ হওয়া প্রয়োজন।"স্হানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ শাহজাহান মিয়া জানান,"ইটের পাঁজা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ উদ্যোগ নিলে যে কোন সময় বন্ধ করা সম্ভব।"

No comments:

Post a comment

Post Top Ad

Responsive Ads Here