মঠবাড়িয়া ছাত্রলীগের হাতে প্রকৌশলী লাঞ্ছিত "পাল্টাপাল্টি অভিযোগ" - মঠবািড়য়া সমাচার

শিরোনাম

Post Top Ad

Wednesday, 11 March 2020

মঠবাড়িয়া ছাত্রলীগের হাতে প্রকৌশলী লাঞ্ছিত "পাল্টাপাল্টি অভিযোগ"

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলায় দুটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ইজিপি টেন্ডার নোটিশ বোর্ডে না টানিয়ে এবং লটারি ছাড়াই টাকার বিনিময় প্রকৌশলী কাজী আবু সাঈদ মোঃ জসিম তার পছন্দের ঠিকাদারকে কাজ পাইয়ে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। ভুক্তভোগী ঠিকাদরা বলছেন প্রকৌশল কমিশন ছাড়া কিছুই বোঝেন না তার বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের অভিযোগ রয়েছে লটারির মধ্যে ঠিকাদার চূড়ান্ত করার কথা থাকলেও তা শুধু কাগজে কলমে। এইদিকে প্রকৌশল কাজী আবু সাঈদ মোঃ জসিম অভিযোগ করেন ছাত্রলীগের দুই নেতা সোমবার টেন্ডার জালিয়াতির অভিযোগে বাতিলের জন্য উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মশিউর রহমান মর্তূজা ও সাবেক ছাত্রলীগের নেতা আক্তারুজ্জামান নিজামের নেতৃত্ব ১৫/২০ জন বহিরাগত এসে আমাকে লাঞ্ছিত করে। এ বিষয়টি পিরোজপুর নির্বাহী প্রকৌশলীকে আমি ইতিমধ্যে অবহিত করেছি।আমি সকল নিয়ম মেনে পশ্চিম সিংগা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও মানিকখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় নির্মানের জন্য ওএসটিএম পদ্ধতিতে গত ৯/২/২০তারিখ টেন্ডার আহ্বান ও ৯/৩/২০তারিখ ওই টেন্ডার উন্মুক্ত করা হয়। সকল নিয়মনীতি অনুসরন করে ইজিপি টেন্ডারের বিধি মোতাবেক জাতীয় ও আঞ্চলিক পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দেয়া হয়।একই সাথে ইজিপি টেন্ডারের তালিকাভুক্ত ঠিকাদারগন অনলাইনে সমস্ত দরপত্রের কার্যক্রম সম্পন্ন করতে পারবেন এমন ব্যবস্থা করা হয়।এখানে সংশ্লিষ্ট দরপত্র অাহবানকারী কোন প্রকার স্বজনপ্রীতি বা পক্ষপাতিত্বের কোন সুযোগ নেই। ইতিপূর্বে এলটিএম পদ্ধতিতে এক’শ এর অধিক ঠিকাদারগন অংশ গ্রহণ করেন। সেখানে ইজিপি লটারির মাধ্যমে ঠিকাদার চূড়ান্ত করা হয়। এ বিষয়ে মশিউর রহমান মর্তূজার কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন প্রকৌশল সকল অভিযোগ অসত্য তিনি টেন্ডার প্রক্রিয়ায় অনিয়ম করায় আমরা শুধু জানতে চেয়েছি যে টেন্ডারটি ওপেন লটারি দেয়ার কথা থাকলেও তা দেয়া হয়নি কেনো। অন্যদিকে আক্তারুজ্জামান নিজাম এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, উপজেলা প্রকৌশলী কাজী আবু সাঈদ টেন্ডার নোটিশ বোর্ডে না টানিয়ে টাকার বিনিময় তার পছন্দের ঠিকাদারকে কাজ পাইয়ে দেন। তিনি কমিশন ছাড়া কিছুই বোজেনা। তার বিরুদ্ধে অনেক অভিযোগ রয়েছে।তার অভিযোগ ভিত্তিহীন নিজেকে বাচাতে তার এই অভিযোগ

No comments:

Post a comment

Post Top Ad

Responsive Ads Here